এপ্রিল ২৩, ২০২১ ৫ : ০৩ অপরাহ্ণ
Breaking News
Home / Tech / জিন্নানগরের মনোয়ারা প্রাইভেট ক্লিনিকে আবার প্রসুতির মৃত্যু,আবার বেপরোয়া মহেশপুরের অবৈধ ক্লিনিক গুলো,নি:চুপ প্রশাসন

জিন্নানগরের মনোয়ারা প্রাইভেট ক্লিনিকে আবার প্রসুতির মৃত্যু,আবার বেপরোয়া মহেশপুরের অবৈধ ক্লিনিক গুলো,নি:চুপ প্রশাসন

অমিত সরকার মহেশপুর(ঝিনাইদহ) থেকে : ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার কাজীরবেড় ইউপির জিন্নানগর বাজারে অবস্থিত মনোয়ারা প্রাইভেট হাসপাতালে এক প্রসুতি মায়ের সিজার অপারেশন এর পর অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরনের কারনে করুন মৃত্যু  হয়েছে|
প্রাপ্ত সূত্রে জানা গেছে ইউপির কাজীরবেড় গ্রামের আয়ুব হোসেনের কন্যা ১ সন্তানের জননী গর্ভবর্তি শিউলী খাতুন (২৮) কে সিজারের জন্য গত ২ জুন সকালে জিন্নানগর বাজারে অবস্থিত মনোয়ারা প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করেন | ভর্তির দিন সন্ধায় কুষ্টিয়ায় কর্মরত একের পর ভৈরবায় এক ভুল অপারেশন করা কসায় ডাক্তার গোলাম রহমানের হাতে প্রসুতিকে সিজার করলে প্রসুতির শরীর থেকে প্রচুর পরিমান রক্তক্ষর দেখা দেয় | রোগীর অবস্থা অবনতি হলে ৩ জুন ভোর রাত্রে ঐ রোগীকে যশোরের এক প্রাইভেট হাসপালে নেবার পর রোগী শিউলী খাতুনের করুন মৃত্যু হয় বতমানে সিজারের বাচ্ছাটি এখনো জীবিত আছে | শিউলীর খাতুনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে মুহুর্তের মধ্যে এলাকায় হৈ চৈ পড়ে যায়,পরিবারের লোকজন ক্লিনিক ভাংচুর করে এরপর তৎক্ষনিক ভাবে ক্লিনিক মালিক মনোয়ারা বেগম ও পাটনার জুলফিক্কার আলী রোগীর লোকজনদের অর্থের বিনিময়ে ম্যানেজ করে ,এবং নিজ গ্রাম  কাজীরবেড় পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করে ফেলার জন্য চাপ প্রয়োগ করে | উল্লেখ্য এই ক্লিনিকে একের পর এক রোগীর মৃত্যু হওয়ায় রোগীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে | নাম না প্রকাশে এক ব্যাক্তি জানান ইউপির নিশ্চিন্দপুর গ্রামের এক মহিলা গত একমাস আগে এপেন্ডিস অপারেশন করেন,অপারেশনের পর ঐ রোগীর জরায়ু ইনফেকশন হয়ে,ব্যাপক ভাবে শারীরিক সমস্যয় ভুগছেন এবং স্বামীর সংসার থেকে বন্চিত হতে যাচ্ছে | মেয়েটি বর্তমান পিতার বাড়িতে অবস্থান করছে |  এলাবাসির জোর দাবী একের পর এক দুর্ঘটনায় জড়িয়ে পড়া ক্লিনিকটির  বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার জন্য ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন এর হস্থক্ষেপ কামনা করছেন | এ ব্যাপারে ক্লিনিক মালিকের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি বলেন ভাই আমি পরে কথা বলছি | পরবর্তিতে দেখা গেল তার মোবাইলটি বন্ধ করে রেখেছেন | মহেশপুরে অবৈধ ক্লিনিক গুলোর ঠিকমত তদারকি না হওয়ার কারনে তারা বেপরোয়া হয়ে রোগীদের ভর্তি করে ডাক্তার নার্স ছাড়াই বিভিন্ন ধরনের অপারেশন চালিয়ে যাচ্ছেন | স্বরজমিনে দেখা যায় মহেশপুরে যত্র তত্র ভাবে একাধিক প্রাইভেট ক্লিনিক চালালেও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্তা গ্রহন না করায় দিনের পর দিন বেপরোয়া হয়ে এ ধরনের অপারেশন গুলো নিজরাই চালিয়ে যাচ্ছেন | এব্যাপারে মহেশপুরের টি এইচ ও ডা: নাসির উদ্দিন জানান, বিষয় টি আমার জানা নেই, তবে কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।
উল্লেখ্য ২০১৫ সালে এই কসায় খ্যাত ডা: গোলাম রহমান ভৈরবা বাজারে জননী ক্লিনিকে ভুল অপারেশনে করে ৬ জন প্রসূতি মারা যায়। সচেতন মহল জানান, বতমানে সিভিল সার্জন ও প্রশাসনের তদারকির  গাফিলতির কারনে এসব অবৈধ ক্লিনিক গুলো এভাবেই প্রশাসনের নজর এড়িয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন

Check Also

কোটচাঁদপুরে হাত ধোয়া দিবস ২০১৭ অনুষ্ঠিত

কোটচাঁদপুর(ঝিনাইদহ)থেকে সুমনঃ আমার হাতেই আমার সু স্বাস্থ্য ২৬ অক্টোবর বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস ২০১৭ উপলক্ষ্যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *