আগস্ট ৫, ২০২১ ৫ : ১০ অপরাহ্ণ
Breaking News
Home / Tech / জিন্নানগরের মনোয়ারা প্রাইভেট ক্লিনিকে আবার প্রসুতির মৃত্যু,আবার বেপরোয়া মহেশপুরের অবৈধ ক্লিনিক গুলো,নি:চুপ প্রশাসন

জিন্নানগরের মনোয়ারা প্রাইভেট ক্লিনিকে আবার প্রসুতির মৃত্যু,আবার বেপরোয়া মহেশপুরের অবৈধ ক্লিনিক গুলো,নি:চুপ প্রশাসন

অমিত সরকার মহেশপুর(ঝিনাইদহ) থেকে : ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার কাজীরবেড় ইউপির জিন্নানগর বাজারে অবস্থিত মনোয়ারা প্রাইভেট হাসপাতালে এক প্রসুতি মায়ের সিজার অপারেশন এর পর অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরনের কারনে করুন মৃত্যু  হয়েছে|
প্রাপ্ত সূত্রে জানা গেছে ইউপির কাজীরবেড় গ্রামের আয়ুব হোসেনের কন্যা ১ সন্তানের জননী গর্ভবর্তি শিউলী খাতুন (২৮) কে সিজারের জন্য গত ২ জুন সকালে জিন্নানগর বাজারে অবস্থিত মনোয়ারা প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করেন | ভর্তির দিন সন্ধায় কুষ্টিয়ায় কর্মরত একের পর ভৈরবায় এক ভুল অপারেশন করা কসায় ডাক্তার গোলাম রহমানের হাতে প্রসুতিকে সিজার করলে প্রসুতির শরীর থেকে প্রচুর পরিমান রক্তক্ষর দেখা দেয় | রোগীর অবস্থা অবনতি হলে ৩ জুন ভোর রাত্রে ঐ রোগীকে যশোরের এক প্রাইভেট হাসপালে নেবার পর রোগী শিউলী খাতুনের করুন মৃত্যু হয় বতমানে সিজারের বাচ্ছাটি এখনো জীবিত আছে | শিউলীর খাতুনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে মুহুর্তের মধ্যে এলাকায় হৈ চৈ পড়ে যায়,পরিবারের লোকজন ক্লিনিক ভাংচুর করে এরপর তৎক্ষনিক ভাবে ক্লিনিক মালিক মনোয়ারা বেগম ও পাটনার জুলফিক্কার আলী রোগীর লোকজনদের অর্থের বিনিময়ে ম্যানেজ করে ,এবং নিজ গ্রাম  কাজীরবেড় পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করে ফেলার জন্য চাপ প্রয়োগ করে | উল্লেখ্য এই ক্লিনিকে একের পর এক রোগীর মৃত্যু হওয়ায় রোগীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে | নাম না প্রকাশে এক ব্যাক্তি জানান ইউপির নিশ্চিন্দপুর গ্রামের এক মহিলা গত একমাস আগে এপেন্ডিস অপারেশন করেন,অপারেশনের পর ঐ রোগীর জরায়ু ইনফেকশন হয়ে,ব্যাপক ভাবে শারীরিক সমস্যয় ভুগছেন এবং স্বামীর সংসার থেকে বন্চিত হতে যাচ্ছে | মেয়েটি বর্তমান পিতার বাড়িতে অবস্থান করছে |  এলাবাসির জোর দাবী একের পর এক দুর্ঘটনায় জড়িয়ে পড়া ক্লিনিকটির  বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার জন্য ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন এর হস্থক্ষেপ কামনা করছেন | এ ব্যাপারে ক্লিনিক মালিকের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি বলেন ভাই আমি পরে কথা বলছি | পরবর্তিতে দেখা গেল তার মোবাইলটি বন্ধ করে রেখেছেন | মহেশপুরে অবৈধ ক্লিনিক গুলোর ঠিকমত তদারকি না হওয়ার কারনে তারা বেপরোয়া হয়ে রোগীদের ভর্তি করে ডাক্তার নার্স ছাড়াই বিভিন্ন ধরনের অপারেশন চালিয়ে যাচ্ছেন | স্বরজমিনে দেখা যায় মহেশপুরে যত্র তত্র ভাবে একাধিক প্রাইভেট ক্লিনিক চালালেও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্তা গ্রহন না করায় দিনের পর দিন বেপরোয়া হয়ে এ ধরনের অপারেশন গুলো নিজরাই চালিয়ে যাচ্ছেন | এব্যাপারে মহেশপুরের টি এইচ ও ডা: নাসির উদ্দিন জানান, বিষয় টি আমার জানা নেই, তবে কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।
উল্লেখ্য ২০১৫ সালে এই কসায় খ্যাত ডা: গোলাম রহমান ভৈরবা বাজারে জননী ক্লিনিকে ভুল অপারেশনে করে ৬ জন প্রসূতি মারা যায়। সচেতন মহল জানান, বতমানে সিভিল সার্জন ও প্রশাসনের তদারকির  গাফিলতির কারনে এসব অবৈধ ক্লিনিক গুলো এভাবেই প্রশাসনের নজর এড়িয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন

Check Also

কোটচাঁদপুরে চলছে ৫ দিন ব্যাপি ঐতিহ্যবাহী কাত্যায়নী পূজা

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) থেকে সুমনঃ হাজারো দর্শনার্থীর অংশগ্রহণে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা আর ধর্মীয় ভাব গাম্ভির্যের মধ্য …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *