জুলাই ২৬, ২০২১ ৩ : ৪৪ পূর্বাহ্ণ
Breaking News
Home / Tech / জীবননগর হরিহরনগরের মাদক ব্যবসায়ী মশিয়ার আবারও জাগ্রত ঃপ্রশাসনকে বৃদ্ধাআঙ্গুল দেখিয়ে মাদকের স্বর্গ রাজ্য গড়ে তুলেছে ।

জীবননগর হরিহরনগরের মাদক ব্যবসায়ী মশিয়ার আবারও জাগ্রত ঃপ্রশাসনকে বৃদ্ধাআঙ্গুল দেখিয়ে মাদকের স্বর্গ রাজ্য গড়ে তুলেছে ।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জীবননগর হরিহরনগর গ্রামে মাদকের স্বর্গ রাজ্যে পরিনত হয়েছে । জানা গেছে জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের হরিহরনগর গ্রামের নতুন ঈদগাহ পাড়ার মতেহার মন্ডলের ছেলে এক সময় কার মাদকের গড ফাদার হিসাবে পরিচিত মশিয়ার আবারও জাগ্রত হয়ে উঠেছে। তার এ মাদক ব্যবসায় যুব-সমাজ ধ্বংশ সহ এলাকবাসী অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে । এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে মশিয়ার তার মাদক ব্যবসার হাতিয়ার হিসাবে হরিহরনগর দক্ষিন পাড়ার শুকুর আলীর ছেলে আজিবার, মটর আলীর ছেলে সাইফুল (লটু) সহ আরও বেশ কয়েক জন মিলে রাতের আধারে ইয়াবা, ফেন্সিডিল সহ বিভিন্ন নামী দামী ব্যান্ডের মাদক দ্রব্যের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে । তার এই মাদক ব্যবসার ফলে এলাকার উঠতি বয়সের যুবকেরা মরণ নেষা মাদক সেবনের সাথে জড়িয়ে পড়ছে । যার ফলে একদিকে ধ্বংশ হচ্ছে যুব-সমাজ নষ্ঠ হচ্ছে পরিবেশ । এলাকাবাসী আরও বলেন, পুলিশ প্রশাসনের থেকে যখন মাদক ব্যবসায়ীদের আত্বসর্ম্পন করতে বলা হয়ে ছিল তখন থেকে মাদক ব্যবসায়ী মশিয়ার লোক দেখানো মত মাদক ব্যবসা বন্ধ করে, গা ঢেকা দিয়ে ভারতে পালিয়ে যায় । দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় প্রশাসনের কিছু কর্মকর্তাকে হাত করে আবারও এলাকায় মাদকের স্বর্গ রাজ্যে গড়ে তুলেছে । তথ্যনুসন্ধানে জানা গেছে, মশিয়ার মাদকের জন্য প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ টাকা বিকাশ করে মাদক দ্রব্য ক্রয় করে এবং তার মাদকের নিরাপত স্থান হিসাবে ব্যবহার করে থাকে বেনীপুর, শাখারিয়া, করতোয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের রাস্তা, মেদনীপুর সহ বেশ কয়েকটি স্থান দিয়ে মালামাল আনা নেওয়া করে থাকে । তাই এলাকাবাসী সহ সুশিল সমাজের সকলে মাদক মুক্ত সমাজ গঠনের লক্ষে মাদক ব্যবসায়ী মশিয়ারকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ প্রশাসন সহ উদ্ধতর্ন কর্মকর্তার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ।

Check Also

জীবননগর -কালীগঞ্জ মহাসড়কের বৈদ্যনাথপুরে ঘাতক ট্রাক্টর কেড়ে স্কুল ছাত্রীর প্রাণ

আল-আমিন হাসাদাহ থেকেঃ শুকতারার আর যাওয়া হলো না অসুস্থ নানাকে দেখতে। নানাকে একটিবার শেষ দেখার সুযোগ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *