অক্টোবর ১৯, ২০২১ ২ : ০৫ অপরাহ্ণ
Breaking News
Home / Tech / জীবননগর হাবিবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাপসকে অপসরনের দাবিতে,শিক্ষক,শিক্ষাথী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন

জীবননগর হাবিবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাপসকে অপসরনের দাবিতে,শিক্ষক,শিক্ষাথী ও অভিভাবকদের মানববন্ধন

মোঃ মিঠুন মাহমুদ জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা)প্রতিনিধিঃ
চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউনিয়নের হাবিবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাপস কুমারের বিরুদ্ধে একই বিদ্যালয়ের শিক্ষীকা শিউলী খাতুনের সাথে স্কুলের ভিতরে অবৈধ কার্যকলামের অভিযোগ তুলে প্রধান শিক্ষককে স্কুল থেকে অপসারন করে তার শাস্তির দাবিতে গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় হাবিবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক,শিক্ষার্থী,ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও অভিভাবকগন স্কুলের সামনে মানববন্ধন করেন । এ ব্যাপারে স্কুলের একাধীক শিক্ষাথীরা জানান,তাপস স্যার ও শিউলী ম্যাডামের সাথে অবৈধ সম্পকের কথা,তারা বলেন প্রতিদিন স্যার ক্লাস না নিয়ে ম্যাডাম আর স্যার অফিসে বসে প্রেমের অলাপ করে এবং বাজে বাজে ভাষায় কথা বলে। কোন শিক্ষার্থী পড়ার বিষয়ে জানতে গেলে তিনি শিক্ষার্থীদের বাজে ভাষায় কথা বলেন ।এ ব্যাপারে স্কুলের বাকি শিক্ষকদের কাছে প্রধান শিক্ষকের বিষয় জানতে চাইলে তারা বলেন ,প্রধান শিক্ষক ও শিউলী দু’জনই স্কুলে আসেন সবার আগে এবং দু’জনই একই সাথে মটরসাইকেলে চেপে স্কুলে আসেন ।এমন কি তারা ক্লাস না নিয়ে গল্পে ব্যস্থ হয়ে পড়েন কোন প্রতিবাদ করলেই তিনি ক্ষমতার দাপট দেখান এবং আমাদেরকে অকাত্য ভাষায় গালি গালাজ করতে থাকেন । অভিভাবকদের সাথে কথা বললে তারা জানান,তাপস কুমার স্কুলে আসার সময় শিউলী আপাকে মটর সাইকেলে করে নিয়ে যাওয়া আসা করতেন এ বিষয়টি গ্রামের সকলেই জানেন তিনাকে বেশ কয়েকদিন নিষেদও করা হয়েছে তবু তিনি শোনেননি তা ছাড়া অভিভাবকগন যদি কোন বিষয় নিয়ে বিদ্যালয়ে যেতেন তা হলে তাদের সাথে খারাপ আচারন করতেন তারা আরও বলেন গত কয়েক দিন আগে স্কুলে অভিভাবকার উপবৃত্তির জন্য আসলে প্রধান শিক্ষক তাদের সাথেও খারাপ আচারন করেন । বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আ.গাপ্পার জানান,প্রধান শিক্ষক তাপস কুমার ও সহকারী শিক্ষীকা শিউলী খাতুনের মধ্যে দির্ঘ দিন অবৈধ সম্পক রয়েছে বলে অনেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগন আমাদেরকে জানান ,তিনাদের অভিযোগ মতে আমরা তাদেরকে বিষয়টি বলি ।তার পরও তিনিরা আমাদের কোন কথা শুনতে রাজি হননি তা ছাড়াও প্রধান শিক্ষক তাপস কুমারের নামে স্কুলের উন্নয়নমুলক কাজের টাকা আত্বস্বাত করার অভিযোগ রয়েছে । এ সব বিষয় নিয়ে আমরা ম্যানেজিং কমিটির সকল সদস্যগন একত্রিত হয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি ।তারই পরিপেক্ষিতে গতকাল উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে দুই জন সহকারী শিক্ষা অফিসার তদন্তের জন্য আসেন । এ সময় স্কুলের সকল শিক্ষার্থী ক্লাস বর্জন করেন এবং গ্রামবাসী ও অভিভাকগন স্কুলে উপস্থিত হয়ে প্রধান শিক্ষকের অপসরনের দাবিতে মানববন্ধন করেন ।এ ব্যাপারে জীবননগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের এ ইউ ই ও নুর ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি বলেন ,প্রধান শিক্ষক তাপস কুমারের বিরুদ্ধে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অপিসে একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরিপেক্ষিতে আমরা স্কুলে তদন্ত করতে আসি সেখানে গ্রামবাসী ও শিক্ষার্থী যে অভিযোগ তুলেছেন সে বিষয়টি আমরা উদ্ধতন কর্মকর্তার নিকট জানানো ।এ ব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক তাপস কুমারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে সমস্থ অভিযোগ তুলা হয়েছে এটি সম্পন্ন মিথ্যা বানোয়াট আমাকে সমাজে হেয়প্রতিপুন্ন করার জন্য একটি মহল আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ তুলেছে ।এদিকে স্কুল শিক্ষকদের এহেন কান্ড দেখে এলাকার অভিভাবক মহল হতবাক হয়ে পড়েছেন ।

Check Also

দৌলৎগঞ্জ মাঝদিয়া স্থলবন্দর বাস্তবায়নের দাবিতে জীবননগর ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থীদের মতবিনিময়।

মোঃ মিঠুন মাহমুদ জীবননগর(চুয়াডাঙ্গা)প্রতিনিধিঃ দৌলৎগঞ্জ মাঝদিয়া স্থলবন্দর বাস্তবায়নের দাবিতে জীবননগর ডিগ্রি কলেজের সকল বিভাগের শিক্ষার্থীদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *