অক্টোবর ২৯, ২০২০ ৮ : ১৫ পূর্বাহ্ণ
Breaking News
Home / Tech / হজ ফ্লাইট বিড়ম্বনা: চরম ভোগান্তিতে হজ যাত্রীরা

হজ ফ্লাইট বিড়ম্বনা: চরম ভোগান্তিতে হজ যাত্রীরা

আলোকিত অনলাইন ডেক্স:  চলতি বছর হজ ফ্লাইট শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত ১৫টি ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এজন্য ভিসা জটিলতা, সৌদি আরবে মোয়াল্লেম ফি বৃদ্ধি, নতুন নিয়ম চালু,  আগে থেকেই হাজিদের জন্য বাড়ি ভাড়া না করাসহ হজ এজেন্সিগুলোর অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা। তারা আরও ফ্লাইট বাতিলের আশঙ্কা করছেন। এদিকে, প্রায় ৪০ হাজার হজযাত্রীর সৌদি আরব-যাত্রা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

বাংলাদেশ থেকে হজযাত্রী পরিবহন করছে রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্স। হজযাত্রী না পাওয়ায় ২ আগস্ট পর্যন্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ১২টি ও সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের ৩টি হজ ফ্লাইট বাতিল হয়েছে।

বিমান ও সৌদি এরাবিয়ান সূত্র জানায়, ১ আগস্ট পর্যন্ত ১৩ হাজার ৩১৫ জন হজযাত্রী পরিবহন করেছে বিমান। ১৪ হাজার ৪৯২ জন বহন করেছে সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্স। বিমানের  বাতিল হওয়া ১২টি হজ ফ্লাইটে  ৪ হাজার ১৫৩ জন হজযাত্রী সৌদি আরবে যেতে পারতেন।

সূত্র জানায়, ১ আগস্ট পর্যন্ত ৪৪ হাজার হজযাত্রীর ভিসা দিয়েছে সৌদি আরব। দেশটি এ বছর ই-হজ ব্যবস্থাপনা চালু করলেও তাদের ই-ভিসা দেওয়ায় কারিগরি সমস্যার কারণে ভিসা দিতে সমস্যা হচ্ছে।

এদিকে, এ বছর নতুন করে নিয়ম করেছে সৌদি আরব। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, বিগত দুই বছরের মধ্যে কোনও ব্যক্তি হজ পালন করলে এবার ভিসার জন্য অতিরিক্ত ২ হাজার রিয়াল (৪৪ হাজার টাকা) দিতে হবে। শেষ মুহূর্তে অনেক হজযাত্রী এ অর্থ পরিশোধে অনীহা দেখানোয় ভিসা নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। অনেক হজ এজেন্সি এখনও হজযাত্রীদের জন্য সৌদি আরবে বাড়ি ভাড়া সম্পন্ন করেননি। যদিও নির্দেশনা রয়েছে, সৌদি আরবে হাজিরা যে বাড়িতে থাকবেন, সেই বাড়ি বা হোটেলের নাম নাম, তাসরিয়া নম্বর সংবলিত স্টিকার তাদের পাসপোর্টের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে। হজ এজন্সিগুলো শেষ সময়ে কম টাকায় বাড়িভাড়া সুবিধা নিতে দেরিতে বাড়ি ভাড়া করছেন বলে ভিসা জটিলতা সৃষ্টি হচ্ছে।

হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) সূত্রে জানা গেছে, এ বছর সৌদি আরবে মোয়াল্লেমদের ফি বেড়ে গেছে। বিগত বছর গুলোতে ৭২০ রিয়ালে মধ্যে মোয়াল্লেম ঠিক করলেও এ বছর হজ এজেন্সিগুলোর কাছে সৌদি আরবে মোয়াল্লেমরা ১ হাজার ৫০০ থেকে ১ হাজার ৯০০ রিয়াল বাড়তি দাবি করছেন। এ বাড়তি ব্যয়ের বোঝা কমাতে কম টাকায় বাড়ি ভাড়া নেওয়া প্রবণতা বেড়েছে হজ এজেন্সিগুলোর।

সূত্র জানায়, গত মৌসুমেও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ২০টি হজ ফ্লাইট বাতিল হয়।  এসব ফ্লাইটের জন্য নতুন করে ফ্লাইট পরিচালনা করতে হয় এয়ারলাইন্সটিকে। শেষ মুহূর্তে প্রায় ৩ হাজার বিমানের যাত্রী সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে হজে পাঠানো হয়।

মঙ্গলবার (১ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর আশকোনা হজ ক্যাম্পে বিমানমন্ত্রী  রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘ভিসা জটিলতা ওমোয়াল্লেম ফি’সহ বিভিন্ন  কারণে হজযাত্রীরা সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে। ফলে বাংলাদেশ বিমানে ১৭৭টি ফ্লাইটের মধ্যে ৯টি হজ ফ্লাইট এরইমধ্যে বাতিল হয়েছে। ফ্লাইট বাতিল হওয়ার কারণে পরের দিকে বিমানে যাত্রী পরিবহনের চাপ বাড়বে। এছাড়া ৮৫ হাজার যাত্রীর পাসপোর্ট এখনও হাতে পায়নি হজ অফিস। এসব সমস্যা বিমানের নয়। ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হজ এজেন্সিগুলোর জটিলতায় এ সংকট দেখা দিয়েছে।

বিমান মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, হজ ফ্লাইট নিয়ে সংকট মোকাবিলায় ধর্ম মন্ত্রণালয়, বিমান, সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের সঙ্গে বৈঠক করবে মন্ত্রণালয়। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন সংবাদ সম্মেলন করবেন।

হজ ফ্লাইট বাতিল প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ বলেন, ‘হজযাত্রী সংকটের কারণে ফ্লাইট বাতিল করতে হয়েছে। যেসব যাত্রীর এই ফ্লাইটে যাওয়ার কথা ছিল, তাদের ভিসা না হওয়ায় এ সংকট তৈরি হয়েছে।’

সৌদি এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের সেলস ম্যানেজার ওমর খৈয়াম বলেন, ‘হজযাত্রী না থাকায় ফ্লাইট বাতিল হচ্ছে। আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে, হজযাত্রী ঠিকমতো এলে ফ্লাইট ঠিকমতো চলবে।’

হাব মহাসচিব শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, ‘সৌদি আরব এ বছর হজযাত্রীদের জন্য ই-ভিসা চালু করা হয়েছে। তাদের সেখানের সার্ভারে সমস্যা দেখা দেওয়ায় ই-ভিসা প্রিন্ট করতে গিয়ে নানা জটিলতার সৃষ্টি হচ্ছে। এ কারণে ভিসা জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া, এবার নতুন নিয়ম করেছে সৌদি আরব। এসব কারণেই সমস্যা হচ্ছে। হজ এজেন্সি যথাযথ নিয়ম মেনেই বাড়ি ভাড়া সম্পন্ন করেছে। ভিসার জন্য আবেদন করছে।’

এ প্রসঙ্গে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিদ্যমান ও সিএ) আবুল হাসনাত মো. জিয়াউল হক বলেন, ‘হজযাত্রী পরিবহনে এয়ারলাইন্সগুলো প্রস্তুতি যথাযথ রয়েছে। কিন্তু যাত্রী না থাকায় ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। হজ এজেন্সি, ধর্ম মন্ত্রণালয় ভিসাসহ অন্যান্য সমস্যা সমাধান করলে ফ্লাইট নিয়ে জটিলতা থাকবে না।’

প্রসঙ্গত, চলতি মৌসুমে হজ ফ্লাইট শুরু হয়েছে ২৪ জুলাই। বাংলাদেশে থেকে হজযাত্রী পরিবহন করছে রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও সাউদিয়া এয়ারলাইন্স। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইট চলবে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত। সাউদিয়া এয়ারলাইন্সের হজ ফ্লাইট চলবে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত। বাংলাদেশ থেকে এ বছর প্রায় ১২ লাখ ৭ হাজার ১৯৮ জন হজযাত্রী সৌদি আরব যাবেন।

Check Also

জীবননগর -কালীগঞ্জ মহাসড়কের বৈদ্যনাথপুরে ঘাতক ট্রাক্টর কেড়ে স্কুল ছাত্রীর প্রাণ

আল-আমিন হাসাদাহ থেকেঃ শুকতারার আর যাওয়া হলো না অসুস্থ নানাকে দেখতে। নানাকে একটিবার শেষ দেখার সুযোগ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *